ব্যাটিংয়ে ধোনিকেই ভক্ত বানিয়েছিলেন সুশান্ত


এখনো বিশ্বাস হচ্ছে না অনেকের। মাত্র ৩৪ বছর বয়সে পৃথিবীর মায়া কাটিয়ে চলে গেলেন সুশান্ত সিং রাজপুত। ‘এমএস ধোনি–দ্য আনটোল্ড স্টোরি’ চলচ্চিত্র দিয়ে ক্রিকেট অঙ্গনেও জায়গা করে নিয়েছিলেন প্রতিভাবান এই অভিনেতা। গতকাল রোববার নিজের ফ্ল্যাটে ঝুলন্ত অবস্থায় সুশান্তকে খুঁজে পাওয়ার পর থেকেই ধোনির চরিত্রে অভিনয় করার সময়কার নানা গল্প শোনা যাচ্ছে সংশ্লিষ্টদের মাধ্যমে।

মহেন্দ্র সিং ধোনির ম্যানেজার অরুণ পান্ডের আগ্রহেই ‘এমএস ধোনি–দ্য আনটোল্ড স্টোরি’র জন্ম। এই চলচ্চিত্রের পরিচালকও তিনি। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসে পান্ডে বলছিলেন ধোনির সুশান্তমুগ্ধতার কথা, ‘আমার এখনো মনে আছে সেদিনের কথা। মোবাইলে সুশান্তের হেলিকপ্টার শটের অনুশীলনের ভিডিও দেখছিল ধোনি। সেটা দেখে বলল, “আরে তুমি তো একদম ফটোকপি করে ফেললে। রঞ্জি ট্রফিতেও খেলতে পারবে।” এটা শুনে সুশান্তের মুখে বাচ্চাদের মতো আনন্দ ফুটে উঠেছিল, এখনো মনে আছে।’

এই চলচ্চিত্রের জন্য দুই বছর সময় নিয়েছেন সুশান্ত। দেড় বছর নিজেকে শুধু ‘ধোনি’ বানানোতে ব্যয় করেছেন। ধোনির সঙ্গে দেখা করে অঙ্গভঙ্গি নকল করা শিখেছেন, মুদ্রাদোষগুলোও নিখুঁত করতে চেয়েছেন, যেন পর্দায় তাঁকে ধোনি বলেই মনে হয়। সুশান্তের এমন খুঁতখুঁতে আচররণে ধোনিও বিস্মিত হয়েছিলেন, ‘ধোনির সঙ্গে লম্বা সময় ব্যয় করত। একের পর এক প্রশ্ন করত। কোনো উত্তরে সন্তুষ্ট না হলে বা ধোনি কোনো কিছু এড়িয়ে গেলে, সে প্রশ্নটা ঘুরিয়ে উত্তর বের করার চেষ্টা করত। আমার মনে আছে, একবার ধোনি চোখ উল্টে বলেছিল, “আরে ভাই, কত প্রশ্ন করবে আর।” সুশান্তের উত্তরও আমার মনে আছে, “ভাই, সবাই আমার মাঝে আপনাকে খুঁজবে। আপনি যা করেন, আমাকে সব ঠিক ওইভাবে করতে হবে।”’

About মুক্ত পাখি

View all posts by মুক্ত পাখি →